ছবি: বাংলা ডেস্ক

প্রয়াত চলচ্চিত্র নির্মাতা, সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনেতা খান আতাউর রহমানকে আরেক নির্মাতা ও নাট্যব্যক্তিত্ব নাসিউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু রাজাকার বলে কটুক্তি করায় চলচ্চিত্র পরিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এর প্রতিবাদ করেছে। আজ বৃহস্পতিবার এফডিসির কালার ল্যাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে চলচ্চিত্র পরিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এর প্রতিবাদ করেন।

সংবাদ সম্মেলনটি ডেকেছিলেন চলচ্চিত্র পরিবারের আহবায়ক চিত্রনায়ক ফারুক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেন, সিভি জামান, শেখ নজরুল ইসলাম, কাজী কামাল ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, খান আতার ছেলে সঙ্গীতশিল্পী আগুন সহ চলচ্চিত্রের অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তি। অনুষ্ঠানটির নাম দেয়া হয় ‘দুঃখের কিছু কথা বলতে চাই’।

সংবাদ সম্মেলনে চিত্রনায়ক ফারুক বলেন, ‘যুদ্ধ পরবর্তী সময় যে প্রেক্ষাপট ছিল সেটা যেমন আপনি (বাচ্চু) জানেন তেমনি আমরাও জানি। ছবিতে একদিন পর কি এমন পেলেন যে এটাকে নেগেটিভ মনে হল আপনার? মুক্তিযুদ্ধ আপনিও করেছেন আমরাও করেছি। তার মানে এই নয় যে, আপনার কাছ থেকে জানতে হবে কে যোদ্ধা আর কে রাজাকার!’

কণ্ঠশিল্পী আগুন বলেন, ‘এভাবে গুণী মানুষদের ছোট করতে নেই। আমার বাবাকে দেশের সবাই চেনেন ও জানেন। আজকে হঠাৎ রাজাকার বলে দিলেই তাকে খাটো করা যাবে না। আমি যদি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের মানুষ হয়ে থাকি তবে অবশ্যই এই যুদ্ধে আমি জয়ী হবোই। প্রমাণ হবে আমার বাবা রাজাকার ছিলেন না। আমার সঙ্গে সারা দেশবাসী রয়েছেন। সবার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা। আমার বিশ্বাস বাচ্চু চাচা (নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু) তার ভুল বুঝতে পারবেন এবং তার বক্তব্য ফিরিয়ে নেবেন।’ সংবাদ সম্মেলন শেষে খান আতা পরিচালিত ‘আবার তোরা মানুষ হ’ ছবিটি প্রদর্শিত হয়।

প্রসঙ্গত, গেল সপ্তাহে নিউইয়র্কে সাংস্কৃতিক অভিবাসীদের একটি অনুষ্ঠানে নাসির উদ্দিন ইউসুফ প্রয়াত আতাউর রহমানকে ‘রাজাকার’ বলে মন্তব্য করেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘আবার তোরা মানুষ হ’ এটা তো নেগেটিভ ছবি। মুক্তিযোদ্ধাদের বলছে, আবার তোরা মানুষ হ!’ খান আতাকে উদ্দেশ্য করে বাচ্চু আরও বলেন, ‘আরে তুই মানুষ হ। তাই না! তুই তো রাজাকার ছিলি।’ বক্তব্যটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেলে এটি নিয়ে নানামুখী আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। এ ইস্যুতে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিবাদ ও নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেছে চলচ্চিত্র পরিবার।

আপনার মন্তব্য