বিনোদন ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

Jasim hiro of bangla cinema
ছবি: সংগৃহীত

৮০’র দশকের সফল ও জনপ্রিয় ঢালিউডের অ্যাকশন হিরো জসিমের আজ ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী। তার আসল নাম আবদুল খায়ের জসিম উদ্দিন। জনপ্রিয় এই নায়ক ১৯৯৮ সালের ৮ অক্টোবর মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে গেছেন তিনি। ঢালিউডে তার মাধ্যমেই প্রথম অ্যাকশন ধারার সিনেমার প্রচলন শুরু করেন।

জসিম শুধু অভিনেতাই ছিলেন না, ছিলেন একজন প্রযোজক, ফাইট ডিরেক্টর একই সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধা ।

মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে জসিম ছিলেন অনন্য। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধজয়ের একজন সফল নায়ক। মেজর হায়দারের নেতৃত্বে দুই নম্বর সেক্টরে রণাঙ্গনে অংশ নিয়ে বিজয় নিয়ে ফিরে আসেন তিনি।

এর পর নেমে পড়েন জীবনযুদ্ধে। ১৯৭৩ সালে  দেওয়ান নজরুল পরিচালিত ‘দোস্ত দুশমন’ সিনেমায় জসিম  অভিনয় জীবন শুরু করেন। হিন্দি ‘শোলে’ ছবির রিমেকে তিনি 'গাব্বার সিং' চরিত্রে কাজ করে ব্যাপক আলোচিত হন।

এর পর ঢালিউডে খলনায়ক হিসেবে দীর্ঘদিন একক রাজত্ব করেন জসিম। ঢালিউড সিনেমায় তিনিই নতুন ধারার ফাইটিং চালু করেন।

খলনায়ক চরিত্রের মাধ্যমে সিনেমায় অভিনয় শুরু করলেও পরে নায়ক হিসেবেই সফলতা পান জসিম। খলনায়ক থেকে নায়কে পরিণত হওয়া জসিম সময়ের পরিক্রমায় নিজেকে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় হিরোদের কাতারে নিয়ে যান। দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর পরিচালনায় ‘সবুজ সাথী’ সিনেমায় নতুন করে পর্দায় আবির্ভাব ঘটে তার।

সব মিলিয়ে জসিম অভিনীত সিনেমার সংখ্যা দুইশতাধিক। ৮০ ও ৯০ দশকে প্রায় সব জনপ্রিয় নায়িকার বিপরীতে অভিনয় করলেও শাবানা ও রোজিনার সঙ্গে তার জুটিই সবচেয়ে বেশি দর্শকপ্রিয়তা পায়।

১৯৫০ সালের ১৪ আগস্ট ঢাকার কেরানীগঞ্জের বক্সনগর গ্রামে জসিম জন্মগ্রহণ করেন। বিএ পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন । জসিমের স্ত্রী ছিলেন নায়িকা সুচরিতা। পরে তিনি ঢাকার প্রথম সবাক চলচ্চিত্র ‘মুখ ও মুখোশ’-এর নায়িকা পূর্ণিমা সেনগুপ্তার মেয়ে চিত্রনায়িকা নাসরিনকে বিয়ে করেন।

এই অকালে ঝরে যাওয়া নায়ক,  প্রযোজক ও মুক্তিযোদ্ধার সম্মানার্থে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার (বিএফডিসি) ২নং ফ্লোরের নামকরণ করা হয়েছে। জসিমই একমাত্র শিল্পী, যাকে সম্মান জানাতে এফডিসি সবচেয়ে বড় অবদান রেখেছে।

জসিম অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে—‘রাজ দুলারী’, ‘দোস্ত দুশমন’, ‘তুফান’, ‘জবাব’, ‘নাগ নাগিনী’, ‘বদলা’, ‘বারুদ’, ‘সুন্দরী’, ‘কসাই’, ‘লালু মাস্তান’, ‘নবাবজাদা’, ‘অভিযান’, ‘কালিয়া’, ‘বাংলার নায়ক’, ‘গরিবের ওস্তাদ’, ‘ভাইবোন’, ‘মেয়েরাও মানুষ’, ‘পরিবার’, ‘রাজা বাবু’, ‘বুকের ধন’, ‘স্বামী কেন আসামি’, ‘লাল গোলাপ’, ‘দাগী’, ‘টাইগার’ ও ‘হাবিলদার’।

আপনার মন্তব্য

advertisement