বিনোদন প্রতিবেদক

অন্যকে জানাতে পারেন:

Tanzir Tuhin
তানযীর তুহীন। ছবি: সংগৃহীত

জনপ্রিয়ব্যান্ড শিরোনামহীন। বাংলা ব্যান্ডসঙ্গীতে একুশ বছরের পথ চলা দলটির। গতকাল দলটির প্রধান তানযীর তুহীনের ছেড়ে যাওয়ার মধ্য দিয়েই শেষ শিরোনামহীনের সোনালী অধ্যায়ের। কারণ তুহীনের গাওয়া গানগুলো দিয়েই জনপ্রিয়তার তুঙ্গে আসিন হয়েছে দলটি। 

শুক্রবার ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেজে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে দল ছাড়ার ঘোষণা দেন তুহিন। বিষয়টি নিয়ে প্রথমে শিরোনামহীনের সদস্য (বেজ) জিয়াউর রহমান জিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় তখন তিনি জানান, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। আপাতত সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরলেও ডাক্তাররা তাকে মঞ্চে পারফর্ম না করার পরামর্শ দিয়েছেন। শারীরিক ঝুঁকি এড়াতেই তার এ সিদ্ধান্ত। আমরা সবাই মিলে আমাদের বন্ধুর ভালোর জন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

কথাটি আসলে গল্প। আসল কথা আজ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তুহিন। জানিয়েছেন দলটির অন্যান্য সদস্যদের আচরণের কারণেই অভিমানে শিরোনামহীন ছেড়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তুহিন বলেন, ‘আমার হার্টের রক্তনালিতে ছোট্ট একটা ব্লক পাওয়া গেছে। অস্ত্রোপচার লাগেনি। চিকিৎসক বলেছেন ওষুধেই ঠিক হয়ে যাবে। হাসপাতালে চার দিন ছিলাম। আমাকে এক মাস চিকিৎসকের পরামর্শে চলতে হবে। মঞ্চে গান না গাওয়ার ব্যাপারে এক মাস একটু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। তবে গান একেবারেই গাওয়া যাবে না, এমন কিছু মোটেও বলেননি।’

এ সময় ব্যান্ডের অন্য সদস্যদের আচরণে আমি খুবই কষ্ট পেয়েছি। আমি যখন অসুস্থ, আমাকে সুস্থ করার জন্য আমার পরিবার ছুটছে, তখন ব্যান্ডের সদস্যদের কাছে বন্ধুত্বের চেয়ে টাকা মুখ্য হয়ে যায়। তারা একটি শোও মিস করতে চায়নি। তাদের কত টাকার দরকার? তারা ভেবেছে আমি সুস্থ হব না, মঞ্চে আর গান গাইতে পারব না। আমার জায়গায় আরেকজন কণ্ঠশিল্পীকে যুক্ত করে তারা। তাই নিজের ইচ্ছায় দল ছেড়ে চলে আসছি।’

এছাড়াও তুহিন আরও বলেন, ‘তাদের কাছে বন্ধুত্বের চেয়ে টাকা মুখ্য আমি তাদের কাছে এক মাস সময় চেয়েছিলাম। এই এক মাস শো না করলে শিরোনামহীন ব্যান্ডের কী এমন ক্ষতি হতো? কিছু টাকা নাহয় কম আয় হতো। এটা কি আমাদের এত বছরের সম্পর্কের চেয়ে খুব বেশি কিছু? তারা আমাকে সে সময়টুকু দিতে চায়নি।’ 

১৯৯৬ সাল থেকে শিরোনামীহন ব্যান্ডের সঙ্গে জড়িত তুহিন।  বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপত্য বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র থাকা অবস্থায় দলটিতে যোগদান করেছিলেন তিনি।  
ব্যান্ডের ফাউন্ডার মেম্বারও  তুহিন। 

তবে তুহিনের শিরোনামহীন ছেড়ে যাওয়ায় কষ্ঠ পাচ্ছেন ভক্তরা। প্রিয় ব্যান্ডের ভাঙ্গন মেনে মেনে নিতে পারছেননা কোটি কোটি ভক্ত।

আপনার মন্তব্য

advertisement