ক্রীড়া ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

বিসিবি সভাপতি। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম টেস্টে হারার পর চব্বিশ ঘণ্টা না পেরোতেই কাঠগড়ায় মুশফিকুর রহিম। খোদ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অভিযোগের আঙুল তুললেন অধিনায়কের দিকে। পাপন সাফ বললেন, ‘চট্টগ্রাম টেস্টে চারে ব্যাট করতে বলা হয়েছিল মুশফিকুরকে। ও কথা শোনেনি। ও নিজের সিদ্ধান্তে সব করেছে।’

শুক্রবার কোনো রাখঢাক না করে বোর্ড প্রধান বলেন, ‘মুশফিক কিপিং চালিয়ে যাবে কিনা, তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম। চারে সে ব্যাট করবে কিনা, সেটাও জিজ্ঞেস করেছি ওকে। আগেরদিনও বলেছিলাম, চারে ব্যাট করুক। ও করেনি।’

এদিন নিজের বাসায় সাংবাদিকদের বিসিবি সভাপতি জানান, টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ হেরেছে।

পাপন বলেন, ‘আমি অত বড় বিশেষজ্ঞ নই। তবুও যদি আমাকে জিজ্ঞেস করা হয় আমি বলব, চট্টগ্রামে আমাদের হারার প্রথম কারণ ব্যাটিং। টপঅর্ডারের ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হয়েছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে চট্টগ্রাম টেস্টে তামিম-সাকিবের মতো ব্যাটসম্যানরাও রান পায়নি, এটা একটা কারণ। আর টপঅর্ডার দুই ইনিংসেই পুরোপুরি ব্যর্থ। এটাই আমাদের পিছিয়ে দিয়েছে।’

ব্যাটিং ব্যর্থতার পাশাপাশি বাজে ফিল্ডিংকেও দায়ী করেন বিসিবি প্রধান। তার মতে, ‘ব্যাটিং ব্যর্থতা ছাড়াও আমাদের পরাজয়ের অন্যতম কারণ মিসফিল্ডিং। আমাদের ফিন্ডিংয়ে আরও উন্নতি করতে হবে। বড় দলগুলোর সঙ্গে বেশি সুযোগ পাওয়া যায় না। সহজ সুযোগ মিস করলে পিছিয়ে যেতে হয়। আমাদের ফিল্ডাররা সহজ ক্যাচ মিস করে, কঠিন ক্যাচ ধরে।’

আপনার মন্তব্য

advertisement