ছবি: সংগৃহীত

আসছে ১৩ অক্টোবর থেকে শুরু হবে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ! এমনই এক বোম ফাটানো ভবিষ্যদ্ববাণী করে বসে আছেন ক্যাথলিক হোরেশিয়ো।

আর এই ভবিষ্যদ্ববাণীতেই তোলপার বিশ্ব রাজনীতি। কিন্তু কেন? হোরেশিয়োর এই কথায় কেন কান দিতে হবে? 

কারণ হিসেবে দেখা যাচ্ছে, ক্যাথলিক হোরেশিয়ো একজন জ্যোতিষী, তিনি এর আগে বেশ কয়েকটি ভবিষ্যদ্ববাণী করেছেন, এবং তার অধিকাংশই মিলে গেছে।  

জ্যোতিষী ক্যাথলিক হোরেশিয়ো বলেছিলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হবেন। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়েছেন।

হোরেশিয়ো আরও বলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট হবার পর সিরিয়ার আক্রমণ করবেন ট্রাম্প। সম্প্রতি সেটাও মিলে গেছে। চলতি বছরের গোড়াতেই সিরিয়ার হমসে আক্রমণ চালিয়েছে আমেরিকা।

তাই এবারের বিশ্বযুদ্ধ নিয়ে করা ভবিষ্যদ্ববাণীকে হালকা ভাবে নিতে পারছেন না ওয়াকিবহাল মহল।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জ্যোতিষী জানিয়েছেন, চলতি বছরের ১৩ অক্টোবরের মধ্যেই শুরু হচ্ছে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ! আর এই যুদ্ধ হবে প্রথম বা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চাইতেও ভয়াবহ।

কেন এবং কিভাবে এ ভবিষ্যদ্ববাণী করছেন হোরেশিয়ো এই প্রশ্ন আসতে পারে সবার মনে, তাই হোরেশিয়ো জানিয়ে রেখেছেন- লেডি অফ ফতিমা’র সর্বশেষ আবির্ভাব হয়েছিল ১৩ মে ১৯১৭ থেকে ১৩ অক্টোবর ১৯১৭’র মধ্যে। সেই ঘটনার ১০০ বছর পর অর্থাৎ চলতি বছরের ১৩ অক্টোবরের মধ্যে পৃথিবী ধ্বংসের পথে এগোতে শুরু করবে বলেই তার বিশ্বাস। 

এছাড়াও বিশ্ব রাজনীতিদের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়, উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্র-সিরিয়া বা চীন-ভারতের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে জ্যোতিষী ক্যাথলিক হোরেশিয়োর ভবিষ্যৎবাণী আরও বেশি স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

আপনার মন্তব্য

advertisement

advertisement