বিদেশ ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

কখনো শুনেছেন বা দেখেছেন বাজারে বিক্রেতা হিসেবে বসে আছে এক বিড়াল। যেমনটাই শুনুন না কেন ঘটনাটি সত্য। মাছ বিক্রি করছে এক বিড়াল। বিড়াল ও মাছের এই বন্ধুত্ব দেখতে পাবেন ভিয়েতনামের হে ফং মাছ বাজারে। এই গম্ভীর বিড়ালই এই বাজারের অন্যতম জনপ্রিয় ফিস ভেন্ডার! গম্ভীর মুখে সদা ব্যস্ত মাছের পাহারায়। দেখতে গম্ভীর হলেও বিষয়টা কিন্তু খুব মিষ্টি।

তিন বছর বয়সি বিড়ালটির নাম ‘ডগ’। ভিয়েতনামের মাছ ব্যবসায়ী লি ফঙের কাছেই ছোট থেকে রয়েছে 'ডগ'।

লি ফং জানান, কুকুর যেভাবে মুখ হাঁ করে এবং জিভ বার করে শ্বাস-প্রশ্বাস নেয়, ডগও অনেকটা তেমনই। সে কারণেই তার নাম রাখা হয়েছে ডগ।

পোশাক এবং ভঙ্গিতে দেখতে পোক্ত ব্যবসায়ী মনে হয়। ঠিক যেন এক হাত পিছনে রেখে দু’পায়ে সারা মাছ বাজার হেঁটে তদারকি করছে সে। মাঝেমধ্যে মাছ ছাড়াও মাংস এবং সবজি বিক্রি করতেও দেখা যায় তাকে।

তবে এখানে একটা টুইস্ট আছে। মানুষের মতো একহাত পিছনে রেখে হাঁটাহাটি সে করে না। এটা পুরোটাই তার মালিক লি ফঙের কেরামতি। একটু ভাল করে লক্ষ্য করলে বুঝতে পারবেন, ডগের পোশাকটাই এভাবে বানিয়েছেন লি। সামনের দু’টো হাত আসলে নকল।

ডগকে নিয়ে এখন তুমুল ব্যস্ত লি। একদিকে চিত্রগ্রাহকদের হুড়োহুড়ি আর অন্যদিকে বিড়াল মহলে ডগের মহিলা ফ্যান, সামলাতে প্রায় ঘাম ছুটে যাচ্ছে তার। হবে নাই বা কেন? চোখে সানগ্লাস, মাথায় টুপি আর পরনে এমন একটা রাজকীয় পোশাক ডগের ‘ব্যক্তিত্ব’ যে অনেক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।

ডগের একটা নিজস্ব ইনস্টাগ্রাম পেজ রয়েছে। যার প্রোফাইল নাম ডগ ১৫০১। সেখানে তার বিভিন্ন ভঙ্গির ছবিও পোস্ট করে ডগ।

সূত্র : আনন্দবাজার

আপনার মন্তব্য

Daraz Bangla New Year
advertisement

advertisement
advertisement